ই-কমার্স ব্যবসার জন্য গুরত্বপূর্ণ ১০টি পরামর্শ

ই-কমার্স ব্যবসার জন্য টপ ১০টি পরামর্শ:

বর্তমান সময়ে আমাদের দেশীয় ই-কমার্স ব্যবসার অবস্থান উদয়ের পথে । এই সময়টাকে গলাচেপে হত্যা করবেন না । কথাগুলো স্পষ্ট করে বলতে চাই :-
১. অযথা দ্রুততর সময়ে পণ্য বা সেবা পৌছে দেবার অঙ্গিকার করবেন না । ভেবে চিন্তে সময় নিয়ে প্রয়োজনের চেয়ে সামান্য সময় বাড়িয়ে নিয়ে পণ্য/সেবা সেবা পৌছে দেবার কথা প্রকাশ করুন ।
২. পন্য/সেবার মান উন্নয়নে সপ্তাহে একদিন ভাবুন/ কাজে লাগান । কখনই রিজেক্টেড বা ক্ষতিগ্রস্থ পন্য রংচং করে আবার পরিবেশন করবেন না ।
৩. দূর্বলতা গোপন করবেননা , কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধিকে মিথ্যা বলতে নিষেধ করুন , কাস্টমারকে বোঝানোর সক্ষমতা অর্জন করুন ।
৪. নিয়মিত সাইট ত্রুটি পর্যবেক্ষন করুন । অপ্টিমাইজেশনের দিকে নজর দিন ।
৫. কখনোই প্রতিযোগিতাই নামবেন না , নিজকে শক্ত অবস্থানে আনার চেষ্টা করুন
৬. পন্য পরিবেশনের ক্ষেত্রে দূর্বল মানের গ্রাফিক্স ওর্য়াকারদের সরনাপন্ন হবেন না
৭. নিয়মিত ক্যাম্পেইন এর প্রতি নজর দিন ।
৮. পন্য সংরক্ষন বা সরবরাহ ব্যবস্থা পরিপূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত পণ্যটি সাইটে বিক্রয়ের জন্য প্রকাশ করবেন না ।
৯. বিজ্ঞাপন প্রকাশের ক্ষেত্রে অযাচিত কিছু প্রকাশ করবেন না ।
১০. অনুসরন করতে পারেন কাউকে অনুকরণ করবেন না ।
আরও বিস্তারিত জানতে গুগলে সার্চ দিন, ১০/১৫ টা আর্টিকেল পড়ে যাচাই করে তারপর সিদ্ধান্ত নিন। ব্যবসা আপনার আবেগ আর ভালবাসার জায়গা, তাই এটার জন্য কিছু সময় বরাদ্দ করতেই পারনে।
ধন্যবাদ মনযোগ দিয়ে আর্টিকেল টি পড়ার জন্য।

Leave a Reply

Change